ঢেউ

নির্জন বালুকা বেলায়
ঢেউ এসে মিশে যায় , চেতনায়
চলে যায় দূরে , আরো বহুদূরে
মিশে যায় সুনীল জলরাশির সমতল আঙীণায়
ঢেউ তারা শরীরের মাঝখানে
আর জোছনার কোমল হীরক ছটায় ।
চাঁদনীর তুলি আঁকিবুকি কেটে
এঁকে যায় ভাষাহীণ অপরূপ মোহময় সৌন্দর্য
গড়ে ওঠে মনমুগ্ধ বিষ্ময়ের ঢেউ ভাস্কর্য ।
একাকী নির্বান্ধব হ’য়ে পড়ে থাকে
ঝরে পড়া পালক হ’য়ে
নিস্তরঙ্গ বালুকারাশি !