ভালোবাসার প্রথম সোপান

প্রথম কলেজে ভর্তি হয়েই প্রথম যাকে মনে ধরেছিলো ..মানে বলা ভালো প্রথম যার প্রেমে আমি হাবুডুবু খাচ্ছিলাম ..তার নাম অগ্নিদীপা …যেমন নাম ..তেমন ই তার তেজ ..উউফ …বাবা সামনে গিয়ে কথা বলে কার সাধ্যি ..তার ওপর তিনি নাকি প্রেমে একবার ছেঁকা খেয়েছেন ..মাথা সব সময় নামের মতোই গরম থাকে ..আর কথা বললেই তেলেবেগুনে জ্বলতে থাকে ..তা এ হেনো একটা মেয়েকে আমি মন দিয়ে ফেললাম ..
এই কথাটা শুধুমাত্র দীপা বাদে (আমি নিজেই ওর নামের প্রথম দিকটা ভয়ে বাদ দিয়ে দিয়েছি ..কারণ ওটা থাকলে কেমন যেন নিজেকে পোড়া পোড়া লাগে ,আমাদের বন্ধুদের গ্রুপের সবাই জেনে গেল ..আর জানা মানেই যে ভাবেই হোক আমার গলা টা হাড়িকাঠে না ঢোকানো পর্যন্ত ওরা যে শান্তি পাবে না এটা বলাই বাহুল্য ..

একদিন অনেক কষ্টে মনে অনেক সাহস সঞ্চয় করে ঠিক করে ফেললাম ..যা থাকে কপালে ..ওকে বলতেই হবে ..আমাদের সাথেই পড়ে ..চন্দনা..ওর সাথে দারুন ভাব দীপার ..কাজেই অনেক হাতে পায়ে ধরে কাঠখড় পুড়িয়ে একদিন বিরিয়ানি চিকেন চাপ ..আর একদিন কাটলেট কফি খাইয়ে ওকে হাত করলাম ..আমার পয়সায় সাঁটিয়ে তারপর বললো ..আচ্ছা বলবো ..দেখি কি বলে …আমি বললাম এতকিছু খেয়েও তুই রাজি করাতে পারবি না ??বলছিস শুধুই বলবি ??আমার এমন কান্না মুখ দেখে ও হেসে ফেললো ..বললো মুখ দেখেই বোঝা যাচ্ছে তুই খুব ই ভালোবাসিস ..আচ্ছা আমি আমার সাধ্য মতো চেষ্টা করবো ..তবে আমার একটা সাজেশন আছে ..আমি কৌতূহলী হয়ে বলি ..কি কি ??বল ??ও বলে তোর নামটা পারলে পাল্টা ..বলে ক্লাসে ঢুকে পড়ে ..
ও আমার নামটা বলি নি এখনো না ?আমার নাম বিশ্বরুপ .