হাসপাতালকে টাকা ফেরানোর নির্দেশ স্বাস্থ্য কমিশনের

একতারা বাংলা, নিউজ ডেস্ক:

বেসরকারি দুই হাসপাতালকে করোনার চিকিৎসা বাবদ মূল বিল থেকে এই এক জায়গায় ৬১ হাজার, অন্যত্র ১ লক্ষ ৪৫ হাজার টাকা রোগীর পরিবারকে ফেরতের নির্দেশ দিল স্বাস্থ্য কমিশন। শহরের উত্তর থেকে দক্ষিণ একাধিক হাসপাতালে কোভিড চিকিত্সাির নামে লাগামছাড়া বিল তৈরিতে বারবার অভিযোগ উঠেছে।

করোনা সংক্রমণ এবং কিডনির সমস্যা নিয়ে ফ্লেমিং হাসপাতালে ভরতি ছিলেন এক ব্যক্তি। ৬ দিনে তাঁর বিল হয় ৩ লক্ষ ৪৫ হাজার। এত বিল কেন? ফ্লেমিং কর্তৃপক্ষকে প্রশ্ন করে স্বাস্থ্য কমিশন। হাসপাতাল জানায়, এটাই তাদের প্যাকেজ। স্বাস্থ্য নিয়ন্ত্রক কমিশনের চেয়ারম্যান প্রাক্তন বিচারপতি অসীমকুমার বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, ৩ লক্ষ ৪৫ হাজারের মধ্যে ১ লক্ষ ৪৫ হাজার টাকা অবিলম্বে ফেরত দিতে বলা হবে।

অন্যদিকে নিউ আলিপুরের বিপি পোদ্দার হসপিটাল অ্যান্ড মেডিক্যাল রিসার্চ ইনস্টিটিউটে এক কোভিড রোগীর কাছ থেকে চারদিনে ১ লক্ষ ৫১ হাজার ২৬৯ টাকার বিল নেওয়া হয়েছ। সেই ‘মাত্রাতিরিক্ত’ বিল নিয়ে স্বাস্থ্য কমিশনে অভিযোগ করেন এক ব্যক্তি। দেখা যায়, বিলে একই টেস্ট একাধিকবার করা হয়েছে। বিপি পোদ্দার হাসপাতালকে রোগীর পরিবারের হাতে অতিরিক্ত ৬১ হাজার টাকা ফেরতের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত শনিবারই স্বাস্থ্য কমিশন তাদের নয়া সুপারিশে জানিয়েছে, করোনা রোগীর জন্য বেসরকারি হাসপাতালের বেড চার্জ ১ মার্চ অবধি যা ছিল, তাই রাখতে হবে।