আদালতের দ্বারস্থ বৃদ্ধা

একতারা বাংলা, নিউজ ডেস্কঃ

সম্পত্তির দাবিতে বৃদ্ধা মাকে মারধরের অভিযোগ উঠল ছেলে ও বউমার বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে পূ্র্ব বর্ধমানের জামালপুরে। বাধ্য হয়ে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছেন বৃদ্ধা।
অত্যাচার থেকে বাঁচতে প্রথমে জামালপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন অসহায় বৃদ্ধা। কিন্তু থানা কেবলমাত্র ডায়েরি নথিভুক্ত করে দায় সারে বলে অভিযোগ তাঁর। সুবিচার পেতে বৃদ্ধা তাঁর উপর হওয়া অত্যাচারের কথা জানিয়ে চিঠিও দেন। তাতেও সুরাহা হয়নি।

বাধ্য হয়ে বর্ধমান সিজেএম আদালতে মামলা রুজু করেছেন ওই বৃদ্ধা।
জানা গিয়েছে, বর্ধমানের জামালপুরের শিপতাই এলাকার বাসিন্দা ওই বৃদ্ধা। তাঁর দুই ছেলে। বড় ছেলে কর্মসূত্রে দীর্ঘদিন ধরেই বাইরে থাকে। ছোট ছেলে ও বউমার সঙ্গেই থাকতেন বৃদ্ধা। অভিযোগ, সম্পত্তি লিখে দেওয়ার জন্য দীর্ঘদিন ধরেই বৃদ্ধার উপর হেনস্থা করত তাঁর ছোটো ছেলে-বউমা। মারধরও করত।

সম্প্রতি তাঁর অসুস্থতার সুযোগকে কাজে লাগিয়ে একটি স্ট্যাম্প পেপার এনে তাতে সই করে দেওয়ার জন্য চাপ দেয় ছোট ছেলে। তাতে সই না করলে তাঁকে মারধর করে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেওয়া হয়। স্ট্যাম্প পেপারে সই করতে রাজি না হওয়ায় তাঁকে গালিগালাজ করা হয়। এমনকি মারধর পর্যন্ত করা হয়।

বৃদ্ধার আইনজীবী বিধানচন্দ্র সামন্ত বলেন, বৃদ্ধাকে সম্পত্তি লিখে দেওয়ার জন্য দীর্ঘদিন ধরে চাপ দিচ্ছে তাঁর ছোট ছেলে এবং ছেলের বউ। তা না করায় বৃদ্ধাকে মারধর করা হচ্ছে। বিভিন্ন মহলে জানিয়েও প্রতিকার না পেয়ে বৃদ্ধা আদালতে মামলা করেছেন। আদালত তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে।

error: Content is protected !!