যুবতীর বস্তাবন্দি দেহ, চাঞ্চল্য

একতারা বাংলা, নিউজ ডেস্কঃ

আজ, বৃহস্পতিবার দক্ষিন পশ্চিম কলকাতার একবালপুরের মহম্মদ আলী রোডে এক তরুণীর বস্তাবন্দি দেহ উদ্ধারের ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়। স্থানীয়দের দাবি, ওই তরুণীকে খুন করে ফেলে দেওয়া হয়েছে।

জানা গিয়েছে, সাব্বা খাতুন নামে ওই তরুণী ওয়াটগঞ্জে দিদিমার কাছে থাকতেন। দিদিমার সাথে ইদানিং মতবিরোধের জেরে বেশ রেশমা নামে এক বান্ধবীর সঙ্গে থাকতে শুরু করেছিলেন সাব্বা। সাব্বার দিদিমা একদমই রেশমার সঙ্গে নাতনির মেলামেশা পছন্দ করতেন না। কারন রেশমা মাদক্তাসক্ত।

গতকাল সন্ধ্যায় ওয়ারিশ লেনে রেশমার বাড়িতেই ছিল সাব্বা। সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা নাগাদ তাঁর মোবাইলে ফোন আসে। তারপরেই সেখান থেকে বেড়িয়ে যান সাব্বা। রাতে আর বাড়ি ফেরে।নি। যাননি দিদিমার বাড়িতেও। এমনকি বাড়ি থেকে বেরোনোর পরেই তাঁর মোবাইলও সুইচ অফ ছিল। এরপরই আজ সকালে তাঁর বস্তাবন্দী দেহ মেলে এমএম আলি রোডে।

পুলিশ ইতিমধ্যেই দেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে এসএসকেএম হাসপাতালে। এই ঘটনাটি নিয়ে একবালপুর থানা তদন্তও শুরু করেছে। লালবাজারের হোমিসাইড শাখাও বিষয়টি পর্যবেক্ষণে রেখেছে।
ধর্ষণ বা গণধর্ষণ করে সাব্বাকে খুন করা হয়েছে নাকি ঘটনার পিছনে মাদক তত্ত্ব তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

error: Content is protected !!