উচ্চপ্রাথমিকের পুরো নিয়োগ প্রক্রিয়া খারিজ

একতারা বাংলা, নিউজ ডেস্কঃ

উচ্চপ্রাথমিকের টেট খারিজ কলকাতা হাইকোর্টে। স্বজনপোষণের অভিযোগে উচ্চপ্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ খারিজ করল আদালত। প্যানেল থেকে শুরু করে মেরিট লিস্ট সবই বাতিল।প্রায় আড়াই হাজার পরীক্ষার্থীর দায়ের করা মামলার ভিত্তিতে আজ অর্থাত্ শুক্রবার কলকাতা হাইকোর্টে চূড়ান্ত রায় দিয়েছে।

আজকের চূড়ান্ত রায় কলকাতা হাইকোর্ট জানিয়ে দিয়েছে, নিয়োগ প্রক্রিয়া পুরোপুরি বাতিল করা হয়েছে। আবার সব নতুন করে করতে হবে। আদালতের এই রায়ে খুশি পরীক্ষার্থীদের একাংশ। মামলা করা পরীক্ষার্থীদের তরফে আইনজীবী জানিয়েছেন, তাঁদের দাবি ছিল পরীক্ষার্থীদের ডকুমেন্ট চেক করা স্তর থেকে সমস্ত প্রক্রিয়া নতুন করে করতে হবে। কারণ নিয়োগের সময় চূড়ান্ত দুর্নীতি হয়েছে।

মামলার শুনানিতে বিচারপতি মৌসুমী ভট্টাচার্য জানিয়েছেন, উচ্চ প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ গুরুত্বপূর্ণ। শিক্ষক সংখ্যা অত্যন্ত কম। কিন্তু এই মুহূর্তে নিয়োগ প্রক্রিয়া যে পদ্ধতিতে চলছিল, সেই অনুযায়ী এই নিয়োগ প্রক্রিয়া চলতে পারে না। ফলে, আগের প্রক্রিয়া বাতিল করে সবাইকে সুযোগ দিয়ে নতুন করে নিয়োগের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এই মামলায় অভিযোগ ছিল, ২০১১ ও ২০১৫ সালে দুটি টেট নেওয়া হয়েছিল। সেখানে সফল পরীক্ষার্থীদের ভেরিফিকেশনের ডাকার কথা থাকলেও তা হয়নি। ফলে, দুর্নীতি ও স্বজনপোষণের অভিযোগ ওঠে। এর বিরুদ্ধে ২০১৯ সালে কলকাতা হাইকোর্টে মামলা দায়ের করা হয়। সেখানে মামলার অভিযোগ ছিল, নিয়োগ প্রক্রিয়া ব্যাপক দুর্নীতি হয়েছে। স্বজনপোষণ হয়েছে। যাদের নিয়োগ প্রক্রিয়া ডাকার কথা নয়, তাদেরকে ডাকা হয়েছে বলে অভিযোগ তোলা হয়। অথচ যোগ্য প্রার্থীদের ডাকা হয়নি।