আজ চুঁচুড়ার ডানলপ ময়দান থেকে নোয়াপাড়া দক্ষিণেশ্বর মেট্রোর ভার্চুয়াল উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী।

একতারা বাংলা, নিউজ ডেস্কঃ

নোয়াপাড়া থেকে দক্ষিণেশ্বর অবধি মেট্রো চালু হলে উত্তর ও দক্ষিণ শহরতলির মধ্যে যোগাযোগ আরও মসৃণ হতে চলেছে। দক্ষিণেশ্বর মেট্রো স্টেশন দেখতে হয়েছে অনেকটা মন্দিরের আদলেই। দূর থেকে দেখলে মনে হবে আপনি দক্ষিণেশ্বর মন্দিরে প্রবেশ করছেন।

আজ চুঁচুড়ার ডানলপ ময়দান থেকে নোয়াপাড়া দক্ষিণেশ্বর মেট্রোর ভার্চুয়াল উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী। সম্প্রসারিত রুটে যাত্রী পরিষেবা শুরু হবে মঙ্গলবার থেকে। মেট্রো সূত্রে খবর, পথের দৈর্ঘ্য বাড়লেও এখনই বাড়ছে না ভাড়া। সপ্তাহে কাজের দিনে দক্ষিণেশ্বের থেকে নিউ গড়িয়ার মধ্যে আপডাউনে ৭৯ জোড়া ট্রেন চলবে। তবে চলতি মাস থেকেই পুজো দিতে দক্ষিণেশ্বর পৌছে যেতে পারেন মেট্রো চেপেই। ইতিমধ্যেই চার’দফায় পরিদর্শন সেরে ফেলেছে আরভিএনএল ও কলকাতা মেট্রো রেলের আধিকারিকরা। মেট্রোর ট্রায়াল রান চলছে জোরকদমে। আর তা দেখতেই ফের সমস্ত আধিকারিকদের নিয়ে দক্ষিণেশ্বর ও বরানগর মেট্রো স্টেশন প্রায় প্রতিদিনই পরিদর্শন করছেন জেনারেল ম্যানেজার মনোজ যোশী সহ সমস্ত বিভাগের আধিকারিকরা।

নোয়াপাড়া দক্ষিণেশ্বের মেট্রোর পাশাপাশি আজ উদ্বোধন করা হবে, কলাইকুন্ডা ও ঝাড়গ্রামের মধ্যে তৃতীয় লাইন , আজিমগঞ্জ ও খাগড়াঘাট রোড শাখার দ্বিতীয় লাইন, হাওড়া-বর্ধমান কর্ড লাইনে ডানকুনি ও বারুইপাড়ার মধ্যে চতুর্থ লাইন এবং হাওড়া-বর্ধমান মেন লাইনে রসুলপুর ও মগরার মধ্যে তৃতীয় লাইনের একাধিকবার আরভিএনএল প্রতিনিধিরা পরীক্ষা করেছেন স্টেশন, ট্র‍্যাক।

নোয়াপাড়া থেকে দক্ষিণেশ্বর অবধি ট্রলিতে পরিদর্শন সেরেছেন মেট্রো রেলের জেনারেল ম্যানেজার সহ আধিকারিকরা। সব ঠিকঠাক থাকলে, ২২ ফ্রেব্রুয়ারি যাত্রী পরিষেবা চালু হয়ে যেতে পারে দক্ষিণেশ্বর মেট্রো স্টেশন। নোয়াপাড়া থেকে দক্ষিণেশ্বরের মধ্যে চলছে জোর কদমে কাজ। দক্ষিণেশ্বর মেট্রো স্টেশন নির্মাণের সব কাজ শেষ। বরানগর মেট্রো স্টেশনের বাইরের অংশে সাজানোর কাজ শেষ। জোরকদমে চলছে বরানগর মেট্রো স্টেশন এলাকায় বাকি সাজানোর কাজ। প্রতিদিন কাজের অগ্রগতি খতিয়ে দেখছেন, আর ভি এন এল ও মেট্রো রেলের আধিকারিকরা।

বরানগর স্টেশন অবশ্য হচ্ছে বেলঘড়িয়া এক্সপ্রেসওয়ের ওপরে। ডানলপ থেকে সহজেই এখানে পৌছে যাওয়া যাবে। নোয়াপাড়া থেকে দক্ষিণেশ্বরের মধ্যে থাকছে মাত্র একটি স্টেশন। নোয়াপাড়া ও দক্ষিণেশ্বরের মধ্যে দুরত্ব হচ্ছে মাত্র ৪.১ কিলোমিটার। নির্মাণের কাজ শেষ হয়ে গিয়েছে। এখন জোর কদমে চলেছে সিগন্যাল-টেলিকমিউনিকেশন পরীক্ষার কাজ। সব কাজ শেষ হয়ে গিয়েছে। সি আর এসের কাছ থেকে এসে গিয়েছে যাত্রীবাহী মেট্রো চলাচলের অনুমতিপত্র। স্টেশন ভবন নির্মাণ কাজ শেষ। এসক্যালেটর বসানো হয়ে গিয়েছে৷ প্ল্যাটফর্ম বোর্ড বসে গিয়েছে। চলছে এটিভিএম পরীক্ষার কাজ। টিকিট কাউন্টার মেশিনে পরীক্ষার কাজ চলছে জোর কদমে। বিশেষ বিশেষ দিনে ভীড়ের কথা মাথায় রেখেই, স্টেশন প্রশস্ত করা হয়েছে।

রেল বোর্ড সূত্রে খবর, প্রধানমন্ত্রী কালীঘাট থেকে দক্ষিণেশ্বর অবধি মেট্রো যাত্রা করতে পারেন।

error: Content is protected !!