উত্তরবঙ্গে বর্ষা ঢুকলেও দক্ষিণবঙ্গ এখনও বর্ষার অপেক্ষায়

মনোরঞ্জন যশ, দুর্গাপুর :

গতকাল হিমালয় সংলগ্ন উত্তরবঙ্গের পাঁচটি জেলায় বর্ষা প্রবেশ করেছে। এই জেলা গুলি হল জলপাইগুড়ি, কোচবিহার,দার্জিলিং, কালিম্পং, আলিপুরদুয়ার। বর্ষা প্রবেশ করার কারণে স্বস্তিদায়ক আবহাওয়ার সৃষ্টি হয়েছে জেলাগুলিতে। কিন্তু, দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতে এখনো অস্বস্তিকর আবহাওয়া বিদ্যমান। সমগ্র বাংলাতে বর্ষা প্রবেশ করতে এখনো কিছুদিন সময় লাগবে। মাত্রাছাড়া আদ্রতা, ভ্যাপসা গুমোটে ক্লান্ত মহানগরবাসী।

গরমের হাত থেকে সকলেই মুক্তি খুঁজছেন। এই পরিস্থিতিতে আবহাওয়া দফতরের পক্ষ থেকে জানানো হলো যে, অস্বস্তিকর পরিবেশ থেকে আজ রেহাই মিলতে পারে কলকাতা সহ দক্ষিণবঙ্গের একাধিক জেলার। আজ রাজ্যজুড়ে মাঝারি থেকে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা আছে। যা থেকে তাপমাত্রা কিছুটা কমে যাওয়ারও সম্ভাবনা আছে।

সম্প্রতি ইন্ডিয়ান মেটিরিওলজিকাল ডিপার্টমেন্ট এর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে যে, আগামী ১৫ জুনের মধ্যে সমগ্র পশ্চিমবঙ্গে বর্ষা প্রবেশ করবে। তার পূর্বে পশ্চিমবঙ্গ সহ একাধিক রাজ্যে প্রাক বর্ষার মরসুম শুরু হবে। আজ-কালের মধ্যেই প্রাক বর্ষার মরসুম শুরু হবার সম্ভাবনা। আগামী ১১ ই জুন বঙ্গোপসাগরে নিম্নচাপ তৈরি হবার সম্ভাবনা আছে। যার প্রভাবে পশ্চিমবঙ্গ, উড়িষ্যা রাজ্যে শুরু হবে বৃষ্টি। আর যার হাত ধরে দক্ষিণ বঙ্গে বর্ষার আগমনের সম্ভাবনা রয়েছে যথেষ্ট হবে।

প্রথমদিকে আবহাওয়া দফতরের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছিল যে, আগামীকাল থেকে সমগ্র রাজ্যে প্রবেশ করবে বর্ষা। তবে পরবর্তীতে জানানো হয়েছে, এই সময় থেকে কিছুটা পরে সমগ্র রাজ্যে বর্ষা আসতে চলেছে। বর্ষা আসার পূর্বে তাপমাত্রার পতন শুরু হবে একাধিক জেলাতে। আবহাওয়া দপ্তরের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে যে, আজ দক্ষিণবঙ্গের কলকাতা সহ হাওড়া, হুগলি, পূর্ব ও পশ্চিম বর্ধমান, উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনা, পুরুলিয়া, ঝাড়গ্রাম, বীরভূম, নদিয়া, মুর্শিদাবাদ পূর্ব ও পশ্চিম মেদিনীপুরে ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। উত্তরবঙ্গের জেলাগুলিতেও বৃষ্টি হবে।

আজ বজ্রবিদ্যুৎ সহ ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে কলকাতায়। যা থেকে মিলতে পারে স্বস্তি। আজ মহানগরের আকাশ আংশিক মেঘলা থাকবে। কলকাতার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা আজ ৩৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস হতে পারে, সর্বনিম্ন তাপমাত্রা থাকতে পারে ২৮ সেলসিয়াস, বাতাসে জলীয়বাষ্পের পরিমাণ সর্বাধিক ৮৯%, সর্বনিম্ন ৪৮% থাকার সম্ভাবনা আছে আজ।