নিম্নচাপের জেরে বৃষ্টির সম্ভাবনা দক্ষিণবঙ্গের জেলায়

মনোরঞ্জন যশ, দুর্গাপুর :

সম্প্রতি উত্তরবঙ্গে বর্ষা প্রবেশ করেছে, দক্ষিণবঙ্গে এখনো বর্ষা প্রবেশ করেনি। কিন্তু তার পূর্বেই নিম্নচাপের কারণে আগামী বৃহস্পতিবার থেকে শুরু করে আগামী রবিবার পর্যন্ত চলবে ব্যাপক দুর্যোগ, ঝড়-বৃষ্টি। এদিকে আজও রাজ্যের বিভিন্ন স্থানে বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। গতকাল দুপুর থেকে শুরু করে সন্ধ্যা পর্যন্ত দক্ষিণবঙ্গের একাধিক জেলায় বজ্রবিদ্যুৎ সহ প্রবল বৃষ্টি দেখা দেয়। গতকাল হুগলি, পূর্ব মেদিনীপুর, মুরশিদাবাদ, নদীয়া জেলায় বজ্রাঘাতে ২৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। আর, এই অবস্থার মধ্যে আবার নতুন করে তৈরি হয়েছে নিম্নচাপ বঙ্গোপসাগরে।

আবহাওয়া দপ্তরের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে যে, আগামী বৃহস্পতিবার থেকে শুরু করে আগামী রবিবার পর্যন্ত চারদিনের প্রবল দুর্যোগে সমুদ্র উপকূলবর্তী এলাকায় ঢেউয়ের উচ্চতা বাড়ার আশঙ্কা রয়েছে। চার দিন ধরে কলকাতাসহ দক্ষিণবঙ্গের একাধিক জেলায় প্রবল বৃষ্টিপাত চলবে। যার ফলে জলস্তর বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা আছে। এ কারণে উপকূলবর্তী এলাকায় দ্রুত নদী ও সমুদ্রবাঁধ মেরামতির কাজ চালিয়ে যাওয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে নবান্নের পক্ষ থেকে। সমুদ্রে যাওয়া মৎস্যজীবীদের ফিরে আসার অনুরোধ জানানো হয়েছে। উপকূল এলাকায় যারা কাঁচা বাড়িতে রয়েছেন, তাদের নিরাপদ স্থানে রাখার ব্যবস্থা করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে নবান্নের পক্ষে থেকে।

এদিকে, এর সঙ্গে সঙ্গেই আজ রাজ্যজুড়ে চলবে প্রবল বর্ষণ। আজ উত্তরবঙ্গের পাঁচটি জেলায় প্রবল ঝড় বৃষ্টির আশঙ্কা আছে। দক্ষিণ বঙ্গের জেলা গুলির মধ্যে দক্ষিণ ২৪ পরগনা, পশ্চিম মেদিনীপুরে বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টির আশঙ্কা আছে। এছাড়া কলকাতা সংলগ্ন একাধিক জেলায় হালকা ও মাঝারি বৃষ্টির আশঙ্কা আছে। আজ মহানগরীর আকাশ মেঘাচ্ছন্ন থাকার সম্ভাবনা আছে। আজ বিকেলে ঝড়-বৃষ্টির আশঙ্কা আছে কলকাতায়। আজ কলকাতায় দিনের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস থাকার সম্ভাবনা আছে, সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস থাকার সম্ভাবনা আছে। বাতাসের আপেক্ষিক আদ্রতার পরিমাণ সর্বোচ্চ ৯২% সর্বনিম্ন ৫৭% থাকার সম্ভাবনা আছে। আগামী দুদিন ধরে রাজ্যজুড়ে ঝড়ো হাওয়া ও বিক্ষিপ্ত বৃষ্টির সম্ভাবনা আছে।