বিবাহ নয় নিখিলের সাথে লিভ-ইন সম্পর্কে ছিলেন জানিয়ে বিতর্কে নুসরাত

মনোরঞ্জন যশ, দুর্গাপুর :

এই মুহূর্তে সমালোচনার শীর্ষে অবস্থান করছেন বসিরহাটের সাংসদ নুসরত জাহান। বর্তমানে তাঁর সন্তান সম্ভাবনার খবর সামনে আসায় বিতর্ক চরমে উঠেছে। এতদিন পর্যন্ত জানা যাচ্ছিল, নুসরত বিবাহিত ব্যবসায়ী নিখিল জৈনের সঙ্গে। যদিও বেশ কিছুদিন যাবৎ তাঁর স্বামী হিসেবে পরিচিত নিখিল জৈনের থেকে তিনি আলাদা থাকছিলেন। বিবাহবিচ্ছেদের প্রসঙ্গ সামনে আসতেই এবার নুসরতের চাঞ্চল্যকর দাবী, যা নিয়ে বিতর্ক তুঙ্গে উঠেছে।

ইতিমধ্যেই নিখিল জৈন জানিয়েছেন, তিনি নুসরতের সন্তান সম্ভাবনা নিয়ে কিছুই জানেন না। এমনকি নুসরতের সঙ্গে তাঁর দীর্ঘদিন ধরেই ব্যক্তিগত আদান-প্রদান নেই সে কথাও জানিয়েছেন। কিন্তু এদিন বিস্ফোরক বিবৃতি দেন তৃণমূল সাংসদ তথা অভিনেত্রী নুসরত জাহান। তিনি জানান, তাঁর স্বামী বলে পরিচিত নিখিল জৈনের সঙ্গে তিনি শুধুমাত্র সহবাস করেছেন, বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হননি। আর তাই নিয়েই শুরু হয়েছে ব্যাপক জলঘোলা। কারণ তামাম মিডিয়া সাক্ষী আছে 2019 এ নুসরত জাহানের সঙ্গে নিখিল জৈনের বিবাহের।

নুসরত নিজেই একের পর এক ছবি সেসময় পোস্ট করেছিলেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। কিন্তু এখন সন্তানসম্ভবা হওয়ার পর একেবারে ইউটার্ন নিয়েছেন নুসরত। তিনি স্পষ্ট ভাষায় জানিয়েছেন, যেহেতু তাঁর সঙ্গে নিখিল জৈনের কোন বিয়েই হয়নি, তাই বিবাহবিচ্ছেদের কোন প্রশ্ন নেই। পাশাপাশি নুসরত জানিয়েছেন, তুরস্কের বিবাহ আইন অনুসারে সেখানে যে বিয়ে হয়েছিল তা মানা হবেনা ভারতীয় আইনানুযায়ী। উপরন্ত হিন্দু মুসলিম বিবাহের ক্ষেত্রে কোন বিশেষ বিবাহ আইন অনুসরণ করা হয়নি।

যথারীতি এই বিয়ে অবৈধ হিসেবে গৃহীত হবে। অন্যদিকে নুসরতের সঙ্গে অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক তৈরি হয়েছে অভিনেতা যশের। সম্পর্কের টানাপোড়েনের মাঝেই নুসরত সন্তানসম্ভবা হয়ে পড়েন। অন্যদিকে নুসরত এবং নিখিলের সম্পর্ক নিয়ে ইতিমধ্যেই বিভিন্ন স্তরে সমালোচনা হতে শুরু করেছে। নিখিল জৈন অবশ্য এই নিয়ে এখনো পর্যন্ত কোনো প্রতিক্রিয়া দেননি। আপাতত নুসরতের এই দাবি যে বড়োসড়ো বিতর্কের সৃষ্টি করলো, সে কথা অনস্বীকার্য। আর এই বিতর্কের জল কতদূর গড়ায় এখন, সেটাই দেখার।