দলত্যাগ বিরোধী আইনে মুকুলকে চাপে ফেলার চেষ্টা বিজেপির, নির্বিকার মুকুল

একতারা বাংলা, নিউজ ডেস্ক :

সম্প্রতি বিজেপি (BJP) ছেড়ে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সেনেওধন্য মুকুল রায়। প্রায় চার বছর আগে বিজেপি (BJP) শিবিরে নাম লিখিয়েছিলেন। 2021 এর বিধানসভা নির্বাচনে কৃষ্ণনগর উত্তর বিধানসভা কেন্দ্র থেকে বিজেপির টিকিটে জয়লাভ করেন মুকুল রায় । কিন্তু মুকুল রায় (Mukul Roy) দল পরিবর্তন করতে না করতেই দলত্যাগ বিরোধী আইনে তার বিধায়ক পদ খারিজ করার জন্য তৎপরতা গ্রহণ করেছেন বিজেপি বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী।

আরও পড়ুন: সাগরে ইলিশ ধরতে যাওয়ার অনুমতি পেলেন মৎস্যজীবীরা, কমতে পারে দাম

এখনও পর্যন্ত এই ব্যাপারে কোনো প্রতিক্রিয়া দিতে দেখা যায়নি মুকুল রায়কে। অবশেষে মুখ খুলতে দেখা গেল তাকে। পাশাপাশি বিজেপি ছেড়ে অনেকেই তৃণমূল কংগ্রেসে আসতে পারেন বলে জল্পনা বাড়িয়ে দিলেন বঙ্গ রাজনীতির চাণক্য মুকুল রায় । অল্প কথার মধ্যে দিয়ে মন্তব্য করলেও, মুকুল রায়ের বক্তব্য যে যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ , তা বলার অপেক্ষা রাখে না।

মঙ্গলবার তৃণমূল মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বাড়িতে যান মুকুল রায়। সম্প্রতি মাতৃবিয়োগ হয়েছে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের আর সেই জন্যই ছোটবেলার বন্ধু পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বাড়িতে গিয়ে তার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন সদ্য তৃণমূলে যোগ দেওয়া মুকুলবাবু। দীর্ঘক্ষন পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে কথা বলেন তিনি। আর তারপরেই বাইরে বেরিয়ে এসে বর্তমানে শুভেন্দু অধিকারী যে দলত্যাগ বিরোধী আইন কার্যকর করার জন্য রাজ্যপালের দ্বারস্থ হয়েছেন, তার ব্যাপারে প্রশ্ন করা হয় মুকুল রায়কে। আর সেই বিষয়ে প্রতিক্রিয়া দিতে গিয়ে মুকুল রায় বলেন, “আইনে যা আছে, তাই হবে।

অনেকে বলছেন, মুকুল রায় বিজেপি ছেড়ে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করার পর কেন বিজেপি শিবির ত্যাগ করলেন, সেই ব্যাপারে কিছুই বলেননি। পরবর্তীতে কালে তিনি লিখিত আকারে এর কারণ ব্যাখ্যা করবেন বলে জানিয়েছেন। এখনও পর্যন্ত তার পক্ষ থেকে সুনির্দিষ্ট কারণ জানানো হয়নি। তবে মুকুল রায় শিবির পরিবর্তন করার পর থেকেই বিজেপিতে ভাঙ্গন ধরার আশঙ্কা করা হচ্ছে।

আরও পড়ুন: Zydus Cadila কলকাতায় ১২-১৮ বছর বয়সিদের কোভিড টিকার ট্রায়াল করাবে

মুকুলবাবুর বিধায়ক পদ খারিজ করার জন্য উঠেপড়ে লেগেছেন বিজেপির বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। আর এই পরিস্থিতিতে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বাড়িতে গিয়ে বিজেপিতে ভাঙ্গনের ব্যাপারে জল্পনা বাড়িয়ে দিয়ে দলত্যাগ বিরোধী আইন নিয়ে মন্তব্য করতে দেখা গেল কৃষ্ণনগর উত্তরের বিধায়ক মুকুল রায় কে স্বভাবতই কি করবেন মুকুল রায়, তার পরবর্তী পদক্ষেপ কী হবে, সেদিকেই নজর থাকবে সর্বসাধারনের ।

Click here for follow us on facebook — Ektara Bangla